বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৮:৫৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
বাগেরহাটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল স্বাধীনতা বিরোধীদের ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় সকলকে সতর্ক থাকতে হবে -শেখ তন্ময় এমপি বর্তমান সরকারকে ক্ষমতায় রেখে কোন আলোচনা হতে পারে না – ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম। বাগেরহাটে জেলা ওয়ার্কিং গ্রুপের সাথে স্থানীয় সরকারের কর্মকর্তাদের সভা ‘বাগেরহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ইউপি সদস্য’ ( ভিডিও) রমজানের চাঁদ দেখা গেছে, কাল রোজা বাগেরহাটে প্রতিবেশীদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে কলেজ ছাত্রী ও মা বাগেরহাটে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে মানববন্ধন বিএনপি দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত – শেখ তন্ময় এমপি বাগেরহাটে জাতীয় পাট দিবস পালিত




ফিলিস্তিনিদের ঘরবাড়ি ভেঙে দিচ্ছে ইসরায়েল, আন্তর্জাতিক সহযোগিতা কামনা

নতুনবার্তা ডেস্ক
  • প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই, ২০১৯

অধিকৃত বায়তুল মুকাদ্দাস বা জেরুজালেমে ফিলিস্তিনিদের বাড়িঘর ধ্বংসের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষ। ফিলিস্তিনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছেন, ইসরায়েলের অপরাধযজ্ঞের বিষয়ে গোটা বিশ্ব নীরব রয়েছে। তাদের এই নিরবতা ইহুদিবাদীদের অপরাধ করার ক্ষেত্রে আরও বেশি উৎসাহিত করেছে। অবিলম্বে ধ্বংসযজ্ঞ থামাতে ইসরায়েলের ওপর চাপ প্রয়োগের জন্য আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে স্বশাসন কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় সময় সোমবার ভোররাত ৪টার দিকে থেকে পূর্ব বায়তুল মুকাদ্দাস বা পূর্ব জেরুজালেমের উপকণ্ঠে ফিলিস্তিনিদের বাড়িঘর ভেঙে ফেলতে শুরু করে ইসরায়েল। বাড়িঘরগুলো পূর্ব জেরুজালেমের শেষ প্রান্ত ‘সুর বাহার’ এলাকায় অবস্থিত। সেখানকার বাসিন্দারা বলছেন, তারা ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়েই বাড়িঘর নির্মাণ করেছিলেন। কিন্তু ইসরা‌য়েল পশ্চিম তীরের অবশিষ্ট ভূমিও দখলে নিতে বাড়িঘর ভেঙে দিচ্ছে।
সুর বাহারের সীমানা ঘেঁষা গ্রাম ওয়াদি হুমুসে সোমবার সাতশ’ ইসরায়েলি পুলিশ ও দুইশ’ সেনা বাড়িঘর ধ্বংসের অভিযানে অংশ নিয়েছে। দখলদাররা কয়েকটি স্ক্যাভেটর নিয়ে অভিযান শুরু করে এবং সেখানে অন্তত ১০টি বাড়ি ভেঙে ফেলা হয়েছে। যাদের ঘরবাড়ি ভাঙা হয়েছেন তাদের একজন হলেন ইসমাইল আবাদিয়েহ।

আবাদিয়েহ সাংবাদিকদের বলেছেন, তিনি পরিবার নিয়ে পথে বসে গেছেন। ফাদি আল-ওয়াহাশ নামে অন্য একজন সবে তার বাড়ি নির্মাণ শুরু করছিলেন। তার মধ্যেই সেটি ভেঙে ফেলা হয়েছে।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় অনুমতি নিয়েছিলাম। আমি ভেবেছিলাম,আমি ঠিকঠাক নিয়ম মেনেই বাড়ি নির্মাণ করছি। কিন্তু তারা আমার নির্মাণাধীন বাড়ি ভেঙে দিয়েছে।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765