রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৬:১৩ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
বাগেরহাটে প্রধানমন্ত্রীর চাচী রাজিয়া নাসেরের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী পালন বাংলাদেশ শপ ওনার্স এন্ড বিজনেসম্যান সোসাইটির সাথে বাগেরহাটের ব্যবসায়ীদের মতবিনিময় বাগেরহাটে সহিংসতার ও নির্যাতনের শিকার নারীর রেফারেল বিষয়ক কর্মশালা বাগেরহাটে ইবতেদায়ী শিক্ষকদের জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে ‘অনলাইন প্লাটফর্মে জেন্ডার সংবেদনশীলতা’ বিষয়ক কর্মশালা বাগেরহাটে ওয়ার্কিং কমিটির মৎস্য প্রক্রিয়াজাত কারখানা পরিদর্শণ হাজারো বেকারের কর্মসংস্থান তৈরীর লক্ষ্যে কাজ করছেন তারা বাগেরহাটে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকদের কর্মবিরতি বাগেরহাটে পরিবার পরিকল্পনা সেবার মান উন্নয়নে ওয়ার্কিং কমিটির সভা রামপালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বসতবাড়িতে ঢুকে গাছপালা কর্তনের অভিযোগ




জাহাজের মত স্টেডিয়াম

ক্রীড়া ডেস্ক :
  • প্রকাশ: শুক্রবার, ৭ জুন, ২০১৯
স্টেডিয়াম

স্টেডিয়াম, কিন্তু মনে হবে যেন বিশাল এক জাহাজ! এই মাঠে ফুটবল খেলতে খেলতেই গ্যারেথ বেল বেড়ে উঠেছেন। ১৯৮৯ সালে ওয়েলস শহরের কার্ডিফে জন্ম নেন রিয়াল মাদ্রিদের এই ফুটবলার। ২০১৩ টটেনহাম থেকে বেলকে তখনকার সবচেয়ে দামী ফুটবলার হিসেবে কিনে নেয় মাদ্রিদ ক্লাব।

ওয়েলসে প্রধান দুটি স্টেডিয়াম আছে- একটি মিলেনিয়াম স্টেডিয়াম, যেখানে রাগবির পাশাপাশি ফুটবল ম্যাচও হয়। অন্যটি ক্রিকেটের- যার নাম সোফিয়া গার্ডেনস। বাংলাদেশের লাকি ভেন্যু হিসেবে এই মাঠের নাম ডাক আছে। তবে ওয়েলস হচ্ছে রাগবির দেশ। তারা ক্রিকেট ইংল্যান্ডের জার্সিতে খেললেও রাগবিতে তাদের আলাদা দল রয়েছে। জাতীয় ফুটবল দলও আলাদা আছে। তবে কেউ চাইলে ইংল্যান্ডের হয়েও খেলতে পারবে। আলাদা ফুটবল দল থাকলেও এদেশে ফুটবল এখনও রাগবির মতো জনপ্রিয় নয়। ক্রিকেট হচ্ছে দ্বিতীয় সেরা খেলা। গ্যারি স্পিড, রায়ান গিগস ও গ্যারেথ বেলরা অবশ্য ফুটবলকে জনপ্রিয় করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

ইউরোপিয়ানদের কাছে ফুটবলের সবচেয়ে বড় আর আকর্ষণীয় ম্যাচ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল। কার্ডিফে সেদিন ছিল উপচে পড়া ভিড়, তাদের ঘরের ছেলে বেলের হাতে শিরোপা দেখার প্রত্যাশা নিয়ে এসেছিল সমর্থকরা। সেটা পূরণ হয়েছে জুভেন্টাসের বিপক্ষে ৪-১ গোলে রিয়ালের জয়ে। ওই সময়ই ইংল্যান্ডে চলছিল চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। ম্যাচের মাঝে কয়েক দিনের বিরতি পেয়ে সেদিন খেলা দেখতে মিলেনিয়াম স্টেডিয়ামে গিয়েছিলেন তামিম ইকবাল।

মিলেনিয়াম স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল ছাড়াও আরও অনেক বড় বড় প্রতিযোগিতা হয়েছে। ২০১২ সালের অলিম্পিক ফুটবল সহ ছয়টি এফএ কাপ ফাইনাল হয়েছে এখানে। সাড়ে ৭৪ হাজার দর্শক এক সঙ্গে বসে এই স্টেডিয়ামে খেলা উপভোগ করতে পারেন।

এই স্টেডিয়ামের অন্যতম বিশেষত্ব হলো এর ছাদ খোলা-বন্ধ করা যায়। ইউরোপে এধরনের স্টেডিয়ামে আছে কেবল দুটি। জাহাজ আকৃতির এই মাঠটি আপাতত বন্ধ। ফুটবল মৌসুম শেষ হওয়ায় এই ভেন্যুতে ব্যস্ততা নেই। স্টেডিয়ামে ঢোকার সব গেইট পুরোপুরি বন্ধ। ভেতর থেকে এর সৌন্দর্য উপভোগ করা না গেলেও বাইরের সৌন্দর্যই মুগ্ধ হওয়ার মতোই। এক পাশে ট্যাফ নদী। নদীর পাশেই অবস্থান এই স্টেডিয়ামের।

এমনিতেই কার্ডিফ হচ্ছে পর্যটকদের প্রিয় শহর। আর কোনও উপলক্ষ পেলে তো কথাই নেই। এই মুহূর্তে এই শহরে বিশ্বকাপের কিছু ম্যাচ আয়োজন হচ্ছে। বাংলাদেশ দল লন্ডন থেকে বৃহস্পতিবার কার্ডিফে পৌঁছেছে। আগামী কয়েকটা দিন এখানেই থাকবে তারা। শনিবার স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপেক্ষ নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। এমনিতেই এই শহরে ক্রিকেট নিয়ে মাতামাতি নেই। সেটা যে কোনও ক্রিকেট টুর্নামেন্টই হোক, সোফিয়া গার্ডেনসে কী হচ্ছে না হচ্ছে তা নিয়ে কার্ডিফবাসীর আগ্রহও নেই। তাদের সমস্ত আগ্রহ যেন এই জাহাজ আকৃতির স্টেডিয়ামকে কেন্দ্র করে।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765