বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ০৭:৪৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ




শেরপুরের নকলায় ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচে হাজার হাজার মানুষের ঢল

শেরপুর প্রতিনিধি
  • প্রকাশ: বুধবার, ৭ আগস্ট, ২০১৯

শেরপুরের নকলায় হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে ব্রহ্মপুত্র নদে ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকালে চন্দ্রকোনা ইউপি চেয়ারম্যান সাজু সাঈদ সিদ্দিকী ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এবং চন্দ্রকোনা ইউনিয়নবাসীর আয়োজনে এ নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার চন্দ্রকোনা, চরঅষ্টধর ও পাঠাকাটা ইউনিয়নের পাশদিয়ে প্রবাহিত ব্রহ্মপুত্র নদের দধিয়ারচর এলাকায় ওই প্রতিযোগিতা চলে।

 

জানা যায়, পার্শবর্তী জেলা জামালপুর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনাসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত বেশকিছু নৌকার মালিক ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। এতে প্রথম গ্রæপে মাইনকারচর এলাকার “মামা-ভাগ্না” এবং দ্বিতীয় গ্রুপে চরবাছুর আলগীর “টাইগার” নামের নৌকা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে।

পরে আমন্ত্রিত অতিথিরা চ্যাম্পিয়ন হওয়া নৌকার বাইচ ও দলনেতার হাতে পুরস্কার হিসেবে একটি করে রঙিন বড় টেলিভিশন এবং অংশ গ্রহনকারী সকল নৌকার দলনেতার হাতে একটি করে ছোট রঙিন টেলিভিশন তুলে দেয়া হয়।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে চন্দ্রকোনা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাজু সাঈদ সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে চরঅষ্টধর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা গোলাম রব্বানী, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোখলেছুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিন্টু, ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বেলাল আহমেদ শিপু, সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল হক আজিম, সমাজসেবক কামরুজ্জামান গেন্দু, চন্দ্রকোনা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের আইসি আব্দুল বারীসহ ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মী, বিভিন্ন বয়সী হাজারো উৎসুক নারী পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় আব্বসউদ্দীন, রাসেল মিয়া ও ¯^পন মিয়া বলেন, ওই নৌকা বাইচ দেখতে সকাল থেকেই ব্রহ্মপুত্র নদের দুই তীরে উৎসুক জনতা জড়ো হতে থাকেন। দুপুর হতে না হতেই ব্রহ্মপুত্র নদের তীরবর্তী এলাকা বিভিন্ন বয়সী হাজারো নারী পুরুষ উৎসুক দর্শকের মিলন মেলায় পরিণত হয়। এই প্রতিযোগিতাকে কেন্দ্র করে দূরের আত্মীয় স্বজনরা সেখানকার তাদের আত্মীয়ের বাড়িতে এবং ওই এলাকার অন্যত্র বিবাহিত মেয়েরা তার পরিবার পরিজন নিয়ে বাবার বাড়িতে আসেন। দুই-তিন দিন আগে থেকেই এলাকা জুড়ে শুরু হয় উৎসবের আমেজ। আয়োজনকে সাফল্য মন্ডিত করতে ডেকোরেশনে আয়োজকদের মধ্যেও কোনো কৃপণতা ছিলনা। সরাসরি কাছে থেকে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা উপভোগ করতে ভাড়া করে ছোট-বড় অর্ধশতাধিক ডিঙ্গি নৌকায় চড়ে দর্শকরা ব্রহ্মপুত্র নদে অবস্থান করে নদকে যেন একটি নতুন চিত্রে সাজিয়েছিলেন। বিশেষ করেন নৌকা বাইচ চলাকালে বাইছাদের প্রাণ জুড়ানো জাড়িগান দর্শদের মন কেড়ে নেয়।

এ বছর নৌকা বাইচের উদ্যোক্তা চন্দ্রকোনা ইউপি চেয়ারম্যান সাজু সাঈদ সিদ্দিকী জানান, এ অঞ্চলে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা শত শত বছর ধরে চলে আসছে। এটি যেন এলাকার বাৎসরিক আনন্দের প্রাচীন ঐতিহ্য। তাই যুগ যুগ ধরে তারা প্রতি বছর নৌকা বাইচের আয়োজন করে আসছেন।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ













© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765