শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৪:০৪ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
সেল্ফ টেক হবে দেশের এক নাম্বার আইটি প্লাটফর্ম – শাহাদাত হোসাইন শাহীন বাগেরহাটে পরিবার পরিকল্পনা সেবার মান বৃদ্ধিতে নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ বিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত আল জাজিরার প্রতিবেদন: বার্গম্যানসহ চার জনের বিরুদ্ধে মামলা বাগেরহাটে আদালতের রায়ের পরও প্রভাবশালীদের কারনে জমিতে যেতে পারছেনা একটি পরিবার বাগেরহাট পৌরসভায় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের খান হাবিবুর রহমান নির্বাচিত নিলামে ম্যারাডোনার গাড়ি পঞ্চগড়ে দেখা মিললো নতুন প্রজাতির সাপের যে কারণে প্রেমিককে ৫ টুকরো করেন এই নারী শাহনাজ বাগেরহাটে নৌকা প্রতীকের পক্ষে কেন্দ্রীয় যুবলীগের গনসংযোগ বাগেরহাট পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির পাল্লাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন (ভিডিও)




টিকটক করতে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে কিশোরীকে গণধর্ষণ

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি
  • প্রকাশ: শনিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২০

টিকটক করতে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে ১৩ বছর বয়সী এক কিশোরীকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। তিনদিন একটি কক্ষে আটকে রেখে গণধর্ষণের পর নির্যাতিতাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরে কিশোরীকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার ঢাকার পৃথক দুটি স্থান থেকে দুই কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন,শরিয়তপুর জেলার ডামুড্ডা থানার মোফাজ্জল ব্যাপরীর ছেলে শিশির(১৭), ঢাকা জেলার গেন্ডারিয়ার আনোয়ার হোসেন আকাশের ছেলে জুবায়ের ইসলাম ফাহিম(১৭)।

পুলিশ জানায়, নির্যাতিতা কিশোরী টঙ্গীর রিপাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী। সে টিকটক ভিডিও তৈরী করতো। দেশের বিভিন্ন জেলায় টিকটক তৈরী করে এমন কিছু বন্ধুদের সঙ্গে ফেইজবুকে পরিচয় হয় নির্যাতিতা ঐ কিশোরীর। পরে নিজেদের মেসেঞ্জার গ্রুপ খুলে বিভিন্ন স্থানে থাকা বন্ধুদের এক সঙ্গে টিকটক তৈরীর প্রস্তাব দিলে কিশোরী তার পরিবারকে নানার বাড়ি যাওয়ার কথা বলে গত বুধবার(২৩ ডিসেম্বর) বিকেলে দওপাড়ার বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হন। ঘটনার দিন সন্ধায় আটককৃত শিশির ও ফাহিম নির্যাতিতা কিশোরীকে একটি কক্ষে আটকে রেখে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। বৃহস্পতিবার নির্যাতিতা কিশোরীর মা থানায় সাধারণ ডায়রী করেন। পরে পুলিশ রাজধানীর হাতিরঝিলের মধুবাক এলাকার একটি দোকানের সামনে থেকে কিশোরীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নির্যাতিতার মা জানায়, সে টিকটক ভিডিও তৈরী করতো। ঘটনার দিন বিকেলে নানার বাড়ি যাবার কথা বলে বাসা থেকে বের হয়ে আর ফিরেনি। তার মোবাইল ফোন বন্ধ পেয়ে থানায় ডায়রী করলে শুক্রবার রাতে পুলিশ মেয়েটিকে উদ্ধার করে। টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের পরিদর্শক(তদন্ত) মো.দেলোয়ার হোসেন ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এ ঘটনায় আরো কয়েকজন জরিত থাকার কথা জানা যায়। থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765