বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
যৌনকর্মী থেকে বিবিসির সেরা ১০০ নারীর তালিকায় বাংলাদেশের রিনা ফকিরহাটে পাঁচ শতাধিক চাষীর মাঝে সার ও বীজ বিতরণ বাগেরহাট প্রেসক্লাব নির্বাচনে নীহার-বাকী পরিষদের নিরঙ্কুশ বিজয় বাগেরহাটে ১৫ফুট দৈর্ঘ একটি অজগর উদ্ধার করে সুন্দরবনে অবমুক্ত বাগেরহাটে ১৭ দিনের নবজাতক চুরি, ৩ দিন পর পুকুর থেকে লাশ উদ্ধার বাগেরহাটে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে সভা অনুষ্ঠিত প্রধানমন্ত্রীর চাচী ও শেখ হেলাল উদ্দীন এমপি‘র মা রাজিয়া নাসের আর নেই দিল্লির রাস্তায় আকাশ থেকে পড়ল তেল! বাগেরহাট প্রেসক্লাব নির্বাচনে লড়ছেন ২৫ প্রার্থী অস্ত্র হাতে তুলে নেওয়া ছাড়া যুবকদের সামনে আর কোনো উপায় নেই – মেহবুবা মুফতি




১০৬ রানে অলআউট বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক
  • প্রকাশ: শুক্রবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৯

কলকাতায় প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্টে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের ব্যাটে কোনও লড়াই দেখা গেলো না। গোলাপি বলের টেস্টে অসহায় আত্মসমর্পণ করলো তারা। ভারতের পেস বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে ৩০.৩ ওভারে মাত্র ১০৬ রানে অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ।

টস ভাগ্যটাও সহায় ছিল। পছন্দমতো প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্তও নিতে পারল বাংলাদেশ। কিন্তু এত সুন্দর সাজানো গোছানো মঞ্চটা ভেঙে পড়লো টাইগার ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বজ্ঞানহীনতায়, দৃষ্টিকটু ব্যাটিং পারফরম্যান্সে।

শুক্রবার ইডেন গার্ডেনসে বাংলাদেশ সময় দুপুর দেড়টায় শুরু হয় সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট। ইনিংসের সপ্তম ওভারে ইশান্ত শর্মার বলে এলবির ফাঁদে পড়েন ইমরুল। প্রথম বলে রিভিউ নিয়ে বেঁচে গেলেও তৃতীয় বলে রিভিউ নিয়ে বাঁচতে পারেননি। দলীয় ১৫ রানের মাথায় বিদায় নেন ইমরুল। তার আগে ১৫ বলে করেন মাত্র ৪ রান। ইন্দোর টেস্টে করেছিলেন ৬, ৬।

এরপর তিন নম্বরে নামা মুমিনুল হককে (৭ বলে ০) বিদায় করেন উমেস যাদব। দলীয় ১৭ রানের মাথায় স্লিপে দাঁড়ানো রোহিত শর্মা দুর্দান্ত এক ক্যাচ নেন। এক বল পরে মোহাম্মদ মিঠুনকে বোল্ড করেন উমেস যাদব। দলীয় ২৬ রানের মাথায় বিদায় নেন মুশফিকুর রহিম। মোহাম্মদ শামির বলে বোল্ড হওয়ার আগে কোনো রান পাননি মুশফিক। দলীয় ২৬ রানের মাথায় বাংলাদেশ তাদের চতুর্থ উইকেট হারায়। দলীয় ৩৮ রানের মাথায় বিদায় নেন ওপেনার সাদমান ইসলাম (২৯)। উমেস যাদবের তৃতীয় শিকারে ফেরেন ৫২ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ইনিংস সাজানো সাদমান।

পাঁচ উইকেট হারানো বিপাকে পড়া দলকে ভরসা দিচ্ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং লিটন দাস। এই জুটিতে এসেছে ২২ রান। দলীয় ৬০ আর ব্যক্তিগত ৬ রানে ইশান্ত শর্মার বলে উইকেটের পেছনে ধরা পরেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দ্বিতীয় সেশনে ব্যাট হাতে নামেননি লিটন দাস। ইশান্ত শর্মার তৃতীয় শিকারে ফেরেন ৭ রান করে বোল্ড হওয়া এবাদত হোসেন। বাংলাদেশ দলীয় ৮২ রানের মাথায় সপ্তম উইকেট হারায়।

মাথায় বলের আঘাত লাগায় আম্পায়ারের অনুমতি নিয়ে ক্রিজ ছাড়েন লিটন দাস। টেস্টের নতুন নিয়ম অনুযায়ী লিটন ব্যাট করতে না পারলে কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট (বদলি খেলোয়াড়) হিসেবে অন্য কেউ নামতে পারবেন। রিটায়ার্ড হার্ট হওয়ার আগে তিনি করেন ২৪ রান। কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে তার জায়গায় আসেন মেহেদি হাসান মিরাজ। তবে, বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি মিরাজ। দলীয় ৯৮ রানের মাথায় ইশান্ত শর্মার চতুর্থ শিকারে ফেরেন ১৩ বলে ৮ রান করা মিরাজ।

নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিদায় নেন নাঈম হাসান। ইশান্ত শর্মার পঞ্চম শিকারে ফেরার আগে তিনি ২৮ বলে করেন ১৯ রান। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে বিদায় নেন আবু জায়েদ রাহি। মোহাম্মদ শামির বলে ফেরার আগে কোনো রান পাননি তিনি। ইশান্ত শর্মা ৫টি, উমেস যাদব তিনটি আর মোহাম্মদ শামি দুটি করে উইকেট তুলে নেন।

দুই পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। মেহেদি হাসান মিরাজের বদলে নাঈম হাসান। আর স্পিনার তাইজুল ইসলামের বদলে এসেছেন পেসার আল আমিন হোসেন। ভারতের একাদশে কোনো পরিবর্তন নেই। ইন্দোর টেস্টের একাদশটিই রেখে দিয়েছে তারা।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো সংবাদ













© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765