শুক্রবার, ১৩ মে ২০২২, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
বর্তমান সরকারকে ক্ষমতায় রেখে কোন আলোচনা হতে পারে না – ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম। বাগেরহাটে জেলা ওয়ার্কিং গ্রুপের সাথে স্থানীয় সরকারের কর্মকর্তাদের সভা ‘বাগেরহাটে ইউপি চেয়ারম্যানের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন ইউপি সদস্য’ ( ভিডিও) রমজানের চাঁদ দেখা গেছে, কাল রোজা বাগেরহাটে প্রতিবেশীদের ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে কলেজ ছাত্রী ও মা বাগেরহাটে শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে মানববন্ধন বিএনপি দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত – শেখ তন্ময় এমপি বাগেরহাটে জাতীয় পাট দিবস পালিত বাগেরহাটে জেলা ওয়াকিং কমিটির সাথে সাতক্ষীরা কমিটির অভিজ্ঞতা বিনিময় মোল্লাহাটে কৃষক দুলালের হত্যাকারীদের বিচারের দাবীতে মানববন্ধন




সাগরে ভেসে এলো আরও ৩ জনের মরদেহ

কক্সবাজার প্রতিনিধি
  • প্রকাশ: শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০১৯
কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সিগাল পয়েন্টে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় উল্টে যাওয়া ট্রলারটি

সাগরে মাছ ধরতে গিয়ে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে ট্রলার উল্টে নিখোঁজ আরও তিনজনের মরদেহ পাওয়া গেছে। এই নিয়ে মৃতের সংখ্যা নয়জনে দাঁড়িয়েছে।
বৃহস্পতিবার রাতে বিভিন্ন সময়ে কক্সবাজার ও মহেশখালীর সমুদ্র উপকূল থেকে ভাসমান অবস্থায় মরদেহগুলো উদ্ধার করা হয়। এর আগে ভাঙা ট্রলারটি থেকে ছয়জনের মরদেহ এবং দুইজনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছিল। নিহতদের মধ্যে সাতজনের পরিচয় জানা গেছে। তারা হলেন ভোলা জেলার চরফ্যাশন রসুলপুর এক নম্বর ওয়ার্ডের মৃত আসমান পাটোয়ারীর ছেলে শামছুদ্দিন পাটোয়ারী (৪৫),  পূর্ব মাদ্রাজ এলাকার মৃত আব্দুস শহীদের ছেলে মোহাম্মদ বাবুল (৩২), উত্তর মাদ্রাজ এলাকার মৃত আব্দুল হকের ছেলে মোহাম্মদ মাসুদ (৪৫), একই এলাকার মৃত বুজুগ হাওলাদারের ছেলে আজি উল্লাহ ওরফে মনির (৩৮), মৃত মোহাম্মদ নুরের ছেলে অলি উল্লাহ (৫০), রসুলপুরের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের শষীবিষন এলাকার মুসলিম বলির ছেলে জাহাঙ্গীর বলি (৪০) এবং পূর্ব মাদ্রাজের মো. তরিক মাঝির ছেলে কামাল হোসেন (৩৫)। কক্সবাজার সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফরিদ উদ্দিন খন্দকার জানান, বৃহস্পতিবার রাতের বিভিন্ন সময়ে কক্সবাজার ও মহেশখালীর সমুদ্র উপকূলে ভাসমান অবস্থায় আরও তিনজনের মরদেহ পাওয়া যায়। মরদেহগুলো কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। ওই ট্রলারের তিন জেলে এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। জীবিত উদ্ধার দুই জেলে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। জীবিত উদ্ধার হওয়া জেলে মনির আহমদ ওরফে জুয়েল মাঝি জানান, দুর্যোগে পড়া ট্রলারটির মালিক ভোলার চরফ্যাশন এলাকার ওয়াজ উদ্দিন পিটার ওরফে মিন্টু। গেল চার জুলাই ট্রলারটি মাছ ধরার জন্য ভোলা চরফ্যাশনের ছমরাজ ঘাট থেকে সাগরে নেমেছিল। ট্রলারটিতে মোট ১৪ জন জেলে ছিলেন। গেল ছয় জুলাই ঝড়ো হাওয়ায় ট্রলারটি উল্টে যায়।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765