রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
বাগেরহাটে প্রধানমন্ত্রীর চাচী রাজিয়া নাসেরের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী পালন বাংলাদেশ শপ ওনার্স এন্ড বিজনেসম্যান সোসাইটির সাথে বাগেরহাটের ব্যবসায়ীদের মতবিনিময় বাগেরহাটে সহিংসতার ও নির্যাতনের শিকার নারীর রেফারেল বিষয়ক কর্মশালা বাগেরহাটে ইবতেদায়ী শিক্ষকদের জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে ‘অনলাইন প্লাটফর্মে জেন্ডার সংবেদনশীলতা’ বিষয়ক কর্মশালা বাগেরহাটে ওয়ার্কিং কমিটির মৎস্য প্রক্রিয়াজাত কারখানা পরিদর্শণ হাজারো বেকারের কর্মসংস্থান তৈরীর লক্ষ্যে কাজ করছেন তারা বাগেরহাটে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকদের কর্মবিরতি বাগেরহাটে পরিবার পরিকল্পনা সেবার মান উন্নয়নে ওয়ার্কিং কমিটির সভা রামপালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বসতবাড়িতে ঢুকে গাছপালা কর্তনের অভিযোগ




মোংলার নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেটের জমা টাকা ফেরত পেতে সংবাদ সম্মেলন

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
  • প্রকাশ: শনিবার, ২০ জুলাই, ২০১৯

বাগেরহাটের নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেটে জমাকৃত টাকা ফেরত পেতে মোংলায়
সংবাদ সম্মেলন ভুক্তভোগী কয়েক‘শ নারী-পুরুষ। শনিবার দুপুরে মোংলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন শেষে সেখানেই তাদের টাকা ফেরত পাওয়ার দাবীতে সংগ্রাম পরিষদ গঠন করেন। গ্রাহক মমিনুল ইসলামকে আহবায়ক ও আলমগীর হোসেন শিকারীকে সদস্য সচিব করে গঠিত ৫১ সদস্য বিশিষ্ট এ সংগ্রাম পরিষদ ধাপে ধাপে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে তাদের আমানতের টাকা ফেরত পাওয়ার ব্যবস্থা করবেন। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে আইনী প্রক্রিয়া তরান্নিত করার লক্ষ্যে মানববন্ধন, অবস্থান ধর্মঘট, স্মারক লিপি প্রদাণ, নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আঃ মান্নানের কার্যালয় ঘেরাওসহ বিভিন্ন কর্মসূচি।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা জানান, নিউ বসুন্ধরা রিয়েল এস্টেট বাগেরহাটের কর্ণধর আঃ মান্নান তালুকদার বাগেরহাট ও মোংলাসহ পাশ্ববর্তী এলাকায় কোম্পানির মাঠ কর্মকর্তা/দালাল নিয়োগ দিয়ে মোটা অংকের মুনাফার প্রলোভনে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। লাখ প্রতি মাসে অন্তত ২ হাজার টাকা লভ্যাংশসহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধার আশ্বাসে প্রলুব্ধ হয়ে শুধু মোংলারই ৭শ গ্রাহক প্রায় ৩০ কোটি টাকা জমা করেছে এ প্রকল্পে। প্রথম দিকে গ্রাহকদের লভ্যাংশ সঠিকভাবে প্রদাণ করায় গ্রাহক সংখ্যা দ্রুত বেড়ে যায়। তবে ২০১৮ সালের নভেম্বর থেকে প্রকল্প কর্মকতারা গ্রাহকদের সকল প্রকার লভ্যাংশ ও আসল আমানত ফেরত প্রদাণ বন্ধ করে দেয়। এতে ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে মাঠ পর্যায়ের আমানতকারীরা। এক পর্যায় গ্রাহকরা বুঝতে পারেন তারা প্রতারণার শিকার হয়েছেন আঃ মান্নান ও তার সহযোগীদের হাতে।
নানা ভাবে গ্রাহকরা তাদের আমানতের টাকা ফেরত পেতে মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের চাপ প্রয়োগ করলে তাদের অধিকাংশই গা-ঢাকা দেয়। ইতোমধ্যে প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আঃ মান্নানের নামে দুদকের ১১০ কোটি টাকা মানি লন্ডারিং মামলায় ১৫ জুলাই থেকে তিনি জেল হাজতে রয়েছে। এতে গ্রাহকরা তাদের আমানত ফেরত পেতে আরো শংকায় পড়েন। আমানতকারীরা তাদের আমানত ফেরত পেতে খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আঃ খালেকসহ স্থানীয় সংসদ সদস্য উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
এর আগে বাগেরহাট সদর উপজেলার চুলকাঠি এলকায় সংগ্রাম পরিষদ গঠন করে ভুক্তভোগীরা।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765