শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০৯:২২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ
বাগেরহাটে প্রধানমন্ত্রীর চাচী রাজিয়া নাসেরের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী পালন বাংলাদেশ শপ ওনার্স এন্ড বিজনেসম্যান সোসাইটির সাথে বাগেরহাটের ব্যবসায়ীদের মতবিনিময় বাগেরহাটে সহিংসতার ও নির্যাতনের শিকার নারীর রেফারেল বিষয়ক কর্মশালা বাগেরহাটে ইবতেদায়ী শিক্ষকদের জেলা সম্মেলন অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে ‘অনলাইন প্লাটফর্মে জেন্ডার সংবেদনশীলতা’ বিষয়ক কর্মশালা বাগেরহাটে ওয়ার্কিং কমিটির মৎস্য প্রক্রিয়াজাত কারখানা পরিদর্শণ হাজারো বেকারের কর্মসংস্থান তৈরীর লক্ষ্যে কাজ করছেন তারা বাগেরহাটে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকদের কর্মবিরতি বাগেরহাটে পরিবার পরিকল্পনা সেবার মান উন্নয়নে ওয়ার্কিং কমিটির সভা রামপালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বসতবাড়িতে ঢুকে গাছপালা কর্তনের অভিযোগ




মশা নিধনের ৫০ কোটি টাকা লুট করেছেন দুই মেয়র : রাঙ্গা

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশ: বুধবার, ৭ আগস্ট, ২০১৯

জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও সাবেক এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। মশা নিধনের ৫০ কোটি টাকা লুটপাট করেছেন দুই মেয়র। যে মেয়র মশা মারতে পারেন না, তাদের ডেঙ্গু মশার মতই বিদায় করতে হবে।

রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘ডেঙ্গু নির্মূলে জনসচেতনতা সৃষ্টি’র লক্ষ্যে জাতীয় পার্টি আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের উপস্থিত ছিলেন।
মানববন্ধন কর্মসূচি চলার সময় এডিস মশা নিধনে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

সংসদের বিরোধী দলের মহাসচিব আরও বলেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভয়াবহ। এখন সংসদের অধিবেশন নেই, তাই আমরা সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে রাস্তায় দাঁড়াতে বাধ্য হয়েছি। এসময় তিনি প্রধানমন্ত্রী দেশে নেই বলেই সব জায়গায় অনিয়ম ও বিশৃঙ্খলা বেড়ে গেছে বলে উল্লেখ করেন।

ত্রাণ বিতরণেও অনিয়ম হচ্ছে দাবি করে রাঙ্গা বলেন, এ বছর বন্যায় মানুষ দীর্ঘ সময় পানিবন্দি ছিলেন। সরকারিভাবে যে ত্রাণ দেওয়া হয়েছে তা-ও অপ্রতুল।

হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু রোগ শনাক্ত করণের কিটস নেই :
মানববন্ধনের সভাপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেন, কোনো পরিবারের ছোট্ট শিশুকে যদি মশা কামড় দেয়, তাহলে সে পরিবারটি উদ্বিগ্ন হয়ে যায়। সারাদেশে সঠিকভাবে ডেঙ্গু শনাক্তকরণের কিটস পাওয়া যাচ্ছে না। বিষয়গুলো মানুষের ভয়ের কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। সারাদেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে ডেঙ্গু রোগ শনাক্ত করণের কিটস নেই। তাই দ্রুততম সময়ের মধ্যে সব হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগ শনাক্তকরণ কিটস সরবরাহসহ চিকিৎসার সব ধরনের ব্যবস্থা রাখার আহ্বান তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমাদের জেলা শহরগুলোতে চিকিৎসার খুব বেশি সুযোগ-সুবিধা নেই। ডেঙ্গু হলে মানুষের শরীরের রক্তের প্লাটিলেট ডাউন হয়ে যায়। এর ফলে মানুষের মৃত্যু হয়। বেশিরভাগ হাসপাতালে রক্ত থেকে প্লাটিলেট আলাদা করে রোগীকে চিকিৎসা দেওয়ার ব্যবস্থা নেই। তাই সরকারকে অনুরোধ করবো রক্তের প্লাটিলেট আলাদা করার ইকুইপমেন্ট দ্রুততম সময়ের মধ্যে দেশের সব জায়গায় পৌঁছানোর ব্যবস্থা করুন।

জিএম কাদের বলেন, ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সরকার সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করেনি। ডেঙ্গুর প্রধান বাহক মশাকে ধ্বংস করার জন্য যে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা-ও অপ্রতুল। সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করার কথা ছিল, সেটিও করা হয়নি। আমরা আশঙ্কা করছি, সামনের দিনে ডেঙ্গুর ভয়াবহতা আরও বাড়বে। এর জন্য এখনই ব্যবস্থা নিতে হবে।

মানববন্ধনে দলটির বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765