শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০১:৩০ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
রামপালে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বসতবাড়িতে ঢুকে গাছপালা কর্তনের অভিযোগ বা‌গেরহা‌টে কনসালটেশন ওয়ার্কশপ অনু‌ষ্ঠিত বাগেরহাটে আন্তর্জাতিক মাদক বিরোধী দিবস পালিত বাগেরহাটে মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান কর্মসূচির উপকারভোগীদের প্রশিক্ষন শুরু দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের দাত ভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে – শেখ তন্ময় এমপি চিতলমারীতে বিক্ষোভকারীদের ইটের আঘাতে কৃষকলীগ নেতা আহত বা‌গেরহা‌টে জেলা প্রশাস‌নের সা‌থে সরকারী বিদ‌্যাল‌য়ের অ‌ভিভাবক‌দের মত‌বি‌নিময় বাগেরহাট সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক পরিষদের কমিটি গঠন বাগেরহাটে পরিবার পরিকল্পনা সেবার মান উন্নয়নে ওয়ার্কিং কমিটির সভা বাগেরহাটে মহানবী (সাঃ)কে কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ




রামপালে প্রেসিডেন্ট জিয়ার শাহাদাতবার্ষিকী পালিত

বাগেরহাট প্রতিনিধি :
  • প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১১ জুন, ২০১৯
জিয়াউর রহমানের ৩৮তম শাহাদতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম

বাগেরহাটের রামপালে প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৩৮তম শাহাদাতবার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গত মঙ্গলবার বিকেলে বিএনপি নেতা লায়ন ডক্টর শেখ ফরিদুল ইসলামের বড়দিয়ার নিজ বাসভবনে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেনে, বাগেরহাট জেলা বিএনপির সহসভাপতি সেভ দ্যা সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লায়ন ডক্টর শেখ ফরিদুল ইসলাম, মংলা উপজেলা বিএনপির সভাপতি মৃধা নজরুল ইসলাম, রামপাল উপজেলা বিএনপির দফতর সম্পাদক কাজী জাহিদুল ইসলাম, উপজেলা যুব দল সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, উপজেলা তাঁতীদল সভাপতি সরদার বাকি বিল্লাহ, মংলা উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক এম এ কাশেম, রামপাল উপজেলা ছাত্র নেতা মাসুদুর রহমান পিয়াল প্রমুখ।

জিয়াউর রহমানের শাহাদাতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেতা-কর্মীদের একাংশ।

এসময় বিএনপি নেতা শেখ ফরিদুল ইসলাম বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ছিলেন আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার। তিনিই জাতির সঙ্কটময় মুহূর্তে বার বার দাঁড়িয়েছেন নির্ভয়ে, মাথা উঁচু করে। বিপর্যস্ত জাতিকে রক্ষা করেছেন সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে। ১৯৭১ সালের উত্তাল মার্চে জিয়াউর রহমানের কণ্ঠে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দিশেহারা জাতিকে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার সাহস জুগিয়েছে। স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েই তিনি ক্ষান্ত থাকেননি, দেশমাতৃকার মুক্তির জন্য হানাদারদের বিরুদ্ধে সেক্টর কমান্ডার ও জেড ফোর্সের অধিনায়ক হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দেন। স্বাধীনতা যুদ্ধে তার এ অতুলনীয় ভূমিকা ইতিহাসে উজ্জ্বল হয়ে আছে। তাইতো বর্তমান সরকার যতই বিএনপির নেতা-কর্মীদের নির্যাতন করুক কখনও এদেশ থেকে বিএনপির নাম মুছে ফেলতে পারবে না। এই দেশের মানুষের হৃদয়ে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের নাম লেখা রয়েছে।

অনুষ্ঠানে রামপাল ও মোংলা উপজেলা বিএনপি ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765