শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৪:৩৯ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
বাগেরহাটে মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান কর্মসূচির উপকারভোগীদের প্রশিক্ষন শুরু দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের দাত ভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে – শেখ তন্ময় এমপি চিতলমারীতে বিক্ষোভকারীদের ইটের আঘাতে কৃষকলীগ নেতা আহত বা‌গেরহা‌টে জেলা প্রশাস‌নের সা‌থে সরকারী বিদ‌্যাল‌য়ের অ‌ভিভাবক‌দের মত‌বি‌নিময় বাগেরহাট সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক পরিষদের কমিটি গঠন বাগেরহাটে পরিবার পরিকল্পনা সেবার মান উন্নয়নে ওয়ার্কিং কমিটির সভা বাগেরহাটে মহানবী (সাঃ)কে কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ ব্ল্যাকমেইল করে দেড় মাস ধর্ষণ, অভিযুক্তকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করল দশম শ্রেণির ছাত্রী! নবী মোহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে কটূক্তি করায় বিজেপি নেতা গ্রেপ্তার বাগেরহাটে ক্লাইমেট-স্মার্ট প্রযুক্তির মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত




মার্কিন বাহিনীকে উপসাগরের বাইরে থাকার হুমকি রুহানির

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • প্রকাশ: সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
A handout picture provided by the Iranian presidency on September 22, 2019 shows President Hassan Rouhani (L) listening to Islamic Revolutionary Guard Corps (IRGC) commander Major General Hossein Salami as they attend the annual "Sacred Defence Week" military parade marking the anniversary of the outbreak of the devastating 1980-1988 war with Saddam Hussein's Iraq, in the capital Tehran. - Rouhani said on September 22 that the presence of foreign forces creates "insecurity" in the Gulf, after the US ordered the deployment of more troops to the region. "Foreign forces can cause problems and insecurity for our people and for our region," Rouhani said in a televised speech at the annual military parade, adding that Iran would present to the UN a regional cooperation plan for peace. (Photo by - / Iranian Presidency / AFP) / === RESTRICTED TO EDITORIAL USE - MANDATORY CREDIT "AFP PHOTO / HO / IRANIAN PRESIDENCY" - NO MARKETING NO ADVERTISING CAMPAIGNS - DISTRIBUTED AS A SERVICE TO CLIENTS ===

মার্কিন সামরিক বাহিনীকে উপসাগরীয় অঞ্চলের বাইরে থাকার হুমকি দিয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। সৌদি আরবে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনে যুক্তরাষ্ট্র ঘোষণা দেয়ার পর উপসাগরীয় অঞ্চলের বাইরে থাকতে বিদেশি বাহিনীকে এ হুশিয়ারি দিলেন তিনি।

১৯৮০-৮৮ সাল পর্যন্ত চলা ইরান-ইরাক যুদ্ধের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে রোববার এক অনুষ্ঠানে রুহানি বলেন, বিদেশি সৈন্যরা উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তাব্যবস্থা হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে। এ অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা মোতায়েন অতীতে বিপর্যয় ডেকে এনেছিল বলেও সতর্ক করে দিয়েছেন ইরানি প্রেসিডেন্ট। এদিকে সৌদি আরবে হামলা বন্ধে ইয়েমেনের হুথি বাহিনীর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে জাতিসংঘ। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। সৌদি আরব এবং যুক্তরাষ্ট্র এ হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে। তবে তেহরান সৌদিতে হামলার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে।

শুক্রবার সৌদি আরবের তেল রক্ষায় সেখানে সেনা মোতায়েনের ঘোষণা দেয় যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি ইরানের বিরুদ্ধে উপযুক্ত জবাব দেয়া হবে বলেও হুশিয়ারি দিয়েছে রিয়াদ।

যুক্তরাষ্ট্রের সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্তের জবাবে হাসান রুহানি বলেন, বিদেশি সৈন্যরা সবসময় উপসাগরীয় অঞ্চলের জন্য বেদনাদায়ক ও রহস্যময় পরিস্থিতি তৈরি করেছে। এ অঞ্চলকে তাদের অস্ত্রের প্রতিযোগিতায় ব্যবহার করতে দেয়া উচিত হবে না।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের আগামী অধিবেশনে ইরান উপসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি স্থাপনের জন্য নতুন একটি প্রস্তাব তুলে ধরবে বলে জানিয়েছেন রুহানি। টিভিতে সম্প্রচারিত ভাষণে রুহানি বলেন, আমাদের এ অঞ্চল এবং মানুষের জন্য সমস্যা এবং নিরাপত্তাহীনতার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে বিদেশি বাহিনী।

বিদেশি বাহিনীকে উপসাগরীয় অঞ্চল থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দিয়ে রুহানি বলেন, যদি তারা সচেতন হয়, তবে এ অঞ্চলকে তাদের সামরিক প্রতিযোগিতার কেন্দ্র বানাতে দেয়া উচিত হবে না। আমাদের দেশগুলো এবং এ অঞ্চল থেকে তোমরা (বিদেশি শক্তি) যতই দূরে থাকবে, ততই নিরাপদে থাকবে।

এদিকে শান্তি উদ্যোগের অংশ হিসেবে সৌদি আরবে সব ধরনের হামলা বন্ধে হুথিদের প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছে জাতিসংঘ। বিবিসি জানায়, এ প্রস্তাব ‘যুদ্ধের সমাপ্তি ঘটানোর ইচ্ছার শক্তিশালী বার্তা’ দিতে পারে বলে এক বিবৃতিতে মন্তব্য করেছে জাতিসংঘ। শনিবার এক ঘোষণায় হুথি সুপ্রিম পলিটিক্যাল কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মাহদি আল মাশাত এ প্রস্তাব দেন।

ইয়েমেনে নিযুক্ত জাতিসংঘের বিশেষ দূত মার্টিন গ্রিফিত হামলা বন্ধ করার ও রাজনৈতিক সমাধানের ওই আহ্বানকে স্বাগত জানিয়েছেন। তার দফতর এক বিবৃতিতে জানায়, বিশেষ দূত এ সুযোগের সদ্ব্যবহার করতে এবং সহিংসতা, সামরিক সংঘাত বৃদ্ধি ও অর্থহীন বাগাড়ম্বর হ্রাসে প্রয়োজনীয় সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেছেন।

ইরানে আটক পশ্চিমা ড্রোনের প্রদর্শনী : ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘন করায় আটক পশ্চিমা ড্রোনের এক প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে ইরান। শনিবার তেহরানে ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর (আইআরজিসি) এ আয়োজনে মূলত যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের ড্রোন প্রদর্শন করা হয়। এ প্রদর্শনীর অন্যতম আকর্ষণ ছিল ব্রিটিশ ড্রোন ‘ফিনিক্স’।

আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ডিভিশন ড্রোনটি আটক করেছিল। যে কোনো আবহাওয়ায় শত্রুর অবস্থানে হামলা চালানোর কাজে ‘ফিনিক্স’ ব্যবহার করা যায়।

৫ দশমিক ৬ মিটার লম্বা ডানাবিশিষ্ট এ ড্রোন ঘণ্টায় ১৬৬ কিলোমিটার বেগে চলতে সক্ষম। এটি টানা পাঁচ ঘণ্টা আকাশে উড়তে পারে। আইআরজিসির প্রদর্শনীতে স্থান পাওয়া একটি মার্কিন ড্রোনের নাম ‘অ্যারোসন্ড এইচকিউ’। দিবারাত্রির যে কোনো সময় শত্রুর অবস্থানে গুপ্তচরবৃত্তির কাজেও এটি ব্যবহৃত হয়।

শূন্য দশমিক ৮৬ মিটার লম্বা এবং ৩ দশমিক ২ কেজি ওজনের আমোরিকার ডেজার্ট হক ড্রোনটি এক ঘণ্টা আকাশে উড়তে পারে।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765