বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
বাগেরহাটে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির আহবায়ক কমিটি বাগেরহাটে স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে হাসপাতাল অংশীজনের সভা অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে সিটিজেন টাউন হল মিটিং অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের উদ্বোধন বাগেরহাটে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে মতবিনিময় সভা বাগেরহাটে সক্ষমতা বৃদ্ধিমূলক দুইদিন ব্যাপী প্রশিক্ষন শুরু বাগেরহাটে ই-জিপি সচেতনতামূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত সমন্বয় করে কাজ করলে দেশে কোন দরিদ্র মানুষ থাকবে না -মহাপরিচালক, এনজিও ব্যুরো কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন বাগেরহাটে জীবন বীমা কর্পোরেশনের ৫০ বছর পূর্তিতে আলোচনা সভা ( ভিডিও)




বিষের বোতল নিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন

মাগুরা প্রতিনিধি
  • প্রকাশ: শুক্রবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

মাগুরার মহম্মদপুরে বিয়ের দাবিতে বিষের বোতল হাতে নিয়ে রফিক মল্লিক (২৬) নামে এক যুবকের বাড়িতে অনশনে বসেছেন এক তরুণী (২৫)। তরুণীটি রফিক মল্লিককে তার প্রেমিক বলে দাবি করছেন। উপজেলার যশপুর মালো পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে সাদেক মল্লিকের ছেলে রফিক মল্লিকের বাড়িতে উপজেলার মৌশা উত্তরপাড়া এলাকার এক তরুণী বিয়ের দাবিতে বিষের বোতল হাতে নিয়ে অনশন করছেন।

একা পেয়ে মেয়েটিকে আঘাতও করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

গত ১৩ বছর ধরে রফিকের সঙ্গে সম্পর্ক চলছে দাবি করে অনশনরত ওই তরুণী বলেন, রফিকের প্ররোচনায় পড়ে আমি আমার স্বামীকে তালাক দিয়ে পড়ালেখা চালিয়ে যেতে থাকি। একপর্যায়ে সে আমাকে ঢাকায় নিয়ে একটি পোশাক কারখানায় চাকরি দেয়। ১০ বছর পর আমাকে বিয়ে করবে এমন প্রতিজ্ঞা করে আমার সঙ্গে সম্পর্ক চালিয়ে নিয়ে যেতে থাকে রফিক। এখন ১০ বছর পেরিয়ে দুই বছর বাড়তি চলছে। কিন্তু রফিক কথা রাখেনি। তার সঙ্গে যোগাযোগ করে বিয়ের কথা বললে রফিক আমাকে পাগল বলে ফোন কেটে দেয় এবং যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। তাই নিরুপায় হয়ে আমি বিষের বোতল হাতে নিয়ে তার বাড়িতে এসেছি। আমাকে বিয়ে না করলে আমি আত্মহত্যা করব।

অভিযুক্ত রফিকের কারণেই তার সংসার ভেঙেছে বলে দাবি করেন ওই তরুণী।

অভিযুক্ত প্রেমিক রফিকের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, পড়ালেখার সুবাদে ওই মেয়ের সঙ্গে আমার একটি ভালো বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। এখন অনশন করে ওই মেয়ে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

বালিদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম ফুল মিয়া বলেন, এ ঘটনায় ছেলের বাড়িতে গিয়েছিলাম। দুই পক্ষকে ডেকে নিয়ে আমি সমঝোতার চেষ্টা করছি।

এর আগেও একই দাবিতে অভিযুক্ত রফিকের বাড়িতে গিয়ে আরেক তরুণী উঠেছিল বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, গ্রাম্য শালিসের মাধ্যমে সে বিষয়টি মিমাংসা করে দেয়া হয়। এবার একই ব্যক্তির বিরুদ্ধে একইরকম অভিযোগ আনলো অন্য কোনো তরুণী।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765