রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০১:৪৮ অপরাহ্ন
সর্বশেষ
বাগেরহাটে মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদান কর্মসূচির উপকারভোগীদের প্রশিক্ষন শুরু দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের দাত ভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে – শেখ তন্ময় এমপি চিতলমারীতে বিক্ষোভকারীদের ইটের আঘাতে কৃষকলীগ নেতা আহত বা‌গেরহা‌টে জেলা প্রশাস‌নের সা‌থে সরকারী বিদ‌্যাল‌য়ের অ‌ভিভাবক‌দের মত‌বি‌নিময় বাগেরহাট সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক পরিষদের কমিটি গঠন বাগেরহাটে পরিবার পরিকল্পনা সেবার মান উন্নয়নে ওয়ার্কিং কমিটির সভা বাগেরহাটে মহানবী (সাঃ)কে কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ ব্ল্যাকমেইল করে দেড় মাস ধর্ষণ, অভিযুক্তকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করল দশম শ্রেণির ছাত্রী! নবী মোহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে কটূক্তি করায় বিজেপি নেতা গ্রেপ্তার বাগেরহাটে ক্লাইমেট-স্মার্ট প্রযুক্তির মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত




ফাঁসির রায় শুনে হাসলেন আসামি কাঁদলেন বাদী

নারায়নগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশ: সোমবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

ফাঁসির রায় শেষে হাজতে নেয়ার সময় হাসলেন আসামি আর কাঁদলেন বাদী। এমনি একটি দৃশ্যের অবতারণা হয়েছে নারায়ণগঞ্জের আদালতের বাইরে। নারায়ণগঞ্জের বন্দরে ভাসুরের হাতে ছোট ভাইয়ের বউ হত্যার ঘটনায় আমীর হোসেন (৫২) নামে একমাত্র আসামির ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত।

সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক শেখ রাজিয়া সুলতানা এ রায় ঘোষণা করেন। একই সাথে তাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রায় শেষে আসামিকে হাজতে নেয়ার সময় হাসছিলেন আসামি আমীর হোসেন। আমীর হোসেন বন্দরের নবীগঞ্জ ইসলামবাগের মৃত ফালান ব্যাপারীর ছেলে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিল। হত্যাকাণ্ডের পরদিন নিহতের স্বামী মনির হোসেন তার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। হত্যাকাণ্ডের ঘটনা স্বীকার করে আসামি এর আগে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।
আদালত সূত্র জানায়, ২০১৪ সালের ৩ জুলাই গভীর রাতে নিহত তাসলিমা বেগমকে (৩৫) ধারালো চাকু দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে আমীর হোসেন। তাসলিমা বেগমের এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে।

আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) সালাহ উদ্দিন সুইট জানান, আসামি ও তার স্ত্রী বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে সে টাকা না দিয়ে পালিয়ে বেড়াত। এনজিও কর্মকর্তারা তাদের সন্ধান পাওয়ায় সে ধারণা করে- তার ছোট ভাই মনির হোসেনের স্ত্রী তাসলিমা তাদের সন্ধান দিয়ে দেয়। আর তাই পূর্বপরিকল্পনা মোতাবেক গভীর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বের হলে তাসলিমাকে চাকু দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে সে।

তিনি আরো জানান, আদালত ১৭ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামির উপস্থিতিতে তার ফাঁসির রায় ঘোষণা করেছেন।

এদিকে সন্তান রাকিব হোসেন ও মারজানা আক্তারকে জড়িয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েছেন নিহত তাসলিমা বেগমের স্বামী মনির হোসেন। বাবাকে সান্তনা দেওয়ার ভাষাটুকু হারিয়ে ফেলেছিলো সন্তানরা।

এসময় পাশ দিয়েই মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আমির হোসেনকে কারাগারে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ। তখন আসামি হাসতে হাসতে বারবারই বলছিলেন ‘একশয় একশ’। তবে এ কথা আসামি কেন বলেছেন তা জানা যায়নি।

image_pdfimage_print




সংবাদটি ভাল লাগলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ










© All rights reserved © 2019 notunbarta24.com
Developed by notunbarta24.Com
themebazarnotunbar8765